পটুয়াখালীর মরিচবুনিয়ায় পল্লী বিদ্যুতের কথা বলে ৬ লক্ষাধীক টাকা আত্মসাতের প্রতিবাদে মানববন্ধন

0
2818

স্টাফ রিপোর্টার ঃ পটুয়াখালী জেলার সদর উপজেলাধীন ১০ নং মরিচবুনিয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের প্রায় ১৫০ ঘরে পল্লী বিদ্যুৎ পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে ৬,৯৮,১৮০ টাকা আত্মসাতের প্রতিবাদে ৫সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং তারিখ বুধবার সকাল ১০টায় অত্র ইউনিয়নের ইমান্দি বাজারে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেছে ৭ ও ৪ নং ওয়র্ডের ভুক্তভোগী গ্রামবাসী।
মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে, ৪নং ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগ সভাপতি ইউসুফ হাওলাদার ও শফিক আকন সহ অনেক জানান, তাদের গ্রামে বিদ্যুৎ না থাকায় তারা দারুন অসুবিধার মধ্যে দিন কাটাচ্ছিল। এসময় ২০১৩ সালে মরিচবুনিয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের প্রভাবশালী এ.কে.এম মনিরুজ্জামান জাকির প্যাদা তাদের বলে পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুতের বড় বড় অফিসারের সাথে তার পরিচিতি ও জানাশোনা আছে। সে এলাকায় বিদ্যুৎ এনে দিতে পারবে। পল্লী বিদ্যুৎ পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে সে এলাকার সহজ-সরল ও গরীব প্রায় ১৫০জন গ্রাহকের কাছ থেকে চার থেকে পাঁচ হাজার টাকা করে ২০১৩ ও ২০১৪ সালের বিভিন্ন সময় স্বাক্ষর দিয়ে ৬,৯৮,১৮০ টাকা আত্মসাৎ করে। পরে দীর্ঘ দিন অতিবাহিত হলেও এলাকায় কোন বিদ্যুৎ না আসায় এলাকাবাসী জাকির প্যাদার সরনাপন্ন হলে সে বলে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে টাকা জমা দিয়েছি। কিন’ বিদ্যুতের কোন খবর নাই। সে অসহায় গ্রামবাসীকে বিদ্যুতের কথা বলে সে ঘোরাতে থাকে। তাই তারা কোন উপায় না দেখে পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে যোগাযোগ করলে ডি.জি.এম এবং ম্যানেজার জানায় জাকির প্যাদা নামে কাউকে তারা চেনে না এবং এখানে কোন টাকা পয়সা দেয় নাই। আবার জাকির প্যাদার কাছে গেলে সে তাদের মারধর করে এবং বলে বিদ্যুৎ পেতে হলে আরো এক হাজার করে টাকা দিতে হবে। অসহায় গ্রামীবাসী প্রতারক ও পরবৃত্তলোভী প্রভাবশালী এ.কে.এম মনিরুজ্জামান জাকির প্যাদার সাথে না পেরে মনববন্ধন কর্মসূচী ও বিক্ষোভ সমাবেশের মাধ্যমে সুষ্ঠ বিচার দাবী করেন।
উল্লেখ্য, জাকির প্যাদা নিজে স্বাক্ষর দিয়ে বিভিন্ন সময় যে টাকা নিয়েছে তার কাগজপত্র গ্রাম বাসীর কাছে আছে। জাকির প্যাদার এই প্রতারনার ঘটনায় মরিচবুনিয়া ৪নং ওয়ার্ডের ভুক্তভোগি মোঃ নাজমুল আকন বাদী হয়ে পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আমলী আদালতে একটি সিআর মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-৭৬৭/২০১৮।
মরিচবুনিয়া ইউনিয়নের ৭ ও ৪নং ওয়ার্ডের ভুক্তভোগি জনগন বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছে প্রতিটি গ্রামের ঘরে ঘরে শতভাগ বিদ্যুৎ পৌছে যাওয়ার কথা। কিন’ বিদ্যুতের জন্য টাকা দিয়েও চার-পাঁচ বছর হয়ে গেলেও বিদ্যুৎ পাই নাই। তাই এ ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এবং বিদ্যুৎ পাওয়ার আর্জি জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here