পটুয়াখালীর আলীপুরায় কামরান শাহিদ  প্রিন্স মহাব্বত অডিটরিয়াম উদ্বোধন

0
332

মোঃ শফিকুল ইসলাম সুমন ঃ পটুয়াখালী-৩ (গলাচিপা-দশমিনা) আসনে সম্ভাব্য মনোনয়ন প্রত্যাশী  বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক দানবির ও জনদরদী নেতা হিসাবে পরিচিত কামরান শাহিদ প্রিন্স মহাব্বত। আলী পুরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নিজের নামে কামরান শাহিদ প্রিন্স মহাব্বত অডিটরিয়ামের উদ্বোধন করেন।

গতকাল বিকাল ৩ টায় রনগোপালদি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নিজের নামে প্রতিষ্ঠিত কামরান শাহিদ প্রিন্স মহাব্বত অডিটরিয়ামের উদ্বোধন করেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইদুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখের কামরান শাহিদ প্রিন্স মহাব্বত । বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন পটুয়াখালী সরকারী জুবিলি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ আলাউদ্দিন, গলাচিপা পৌর সভার কাউন্সিলর মোঃ শাহিন মিয়া, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য জহিরুল ইসলাম, বিদ্যালয়ের ছাত্রী মরিয়ম আক্তার, মোঃ ফারহান ও আবু হাসানাত। এ সময় এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ ও বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা উপসি’ত  ছিলেন। 

এর পূর্বে দুপুর সাড়ে ১২ টায় আলীপুরা ও রনগোপালদী সড়কের মাঝামাঝি স্থানে নদীতে বিলিন হয়ে  যাওয়া সড়কের পরিদর্শন করেন। এই  বিলিন হওয়া সড়কটি নিজের অর্থায়নে সংস্কার করে দিচ্ছেন কামরান শাহিদ প্রিন্স মহাব্বত । 

এছাড়া কামরান শাহিদ প্রিন্স মহাব্বত এলাকায় ব্যাপক গনসংযোগ ও গরীব দুখীদের দুঃসময়ে হাত বাড়িয়ে দয়িয়ে ইতিমধ্যেই সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন। এলাকার জনগনের আশা এই দানবির মহব্বতকে যদি আওয়ামীলীগের দলীয় নমিনেশন দেওয়া হয় তা হলে বিপুল ভোটে জয়ী হবেন। 

কামরান শাহিদ প্রিন্স মহব্বত দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে এলাকার মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। তার মধ্যে গলাচিপা ও দশমিনায় ২২৫টি মসজিদে আর্থিক সহায়তা, গলাচিপা পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডসহ দশমিনা ও গলাচিপা উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে প্রতিবছর ঈদ-কোরবানিতে অসহায় দরিদ্রদের মাঝে শাড়ি বিতরণের পাশাপাশি হতদরিদ্র মানুষদের নিয়ে ঈফতার পার্টি করেন। 

৩০ বছর যাবৎ ঢাকায় সরকারি বে-সরকারি বিভিন্ন হাসপাতালে গলাচিপা ও দশমিনায় দরিদ্র ও অসহায় লোকদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসছেন। দশমিনা উপজেলায় আলীপুর ইউনিয়নে মহাব্বত ভবন নামে একটি অডিটোরিয়াম, চাঁনপুরায় মহাব্বত কোরআন শিক্ষা মাদ্রাসা নির্মাণ, প্রতিবন্ধী স্কুলে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে স্কুল ড্রেস ও শীত বস্ত্র বিতরণ করেন। প্রায় ১০ বছর পর্যন্ত প্রতি রমযানে গলাচিপা ও দশমিনায় শত শত লোকের মাঝে যাকাতের টাকা, অসহায় দরিদ্র লোকদের মাঝে শাড়ি, লুঙ্গি ও নগদ অর্থ বিতরন করে থাকেন। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here